সোমবার , ২০ নভেম্বর ২০১৭
Home » দেশজুড়ে » শরীয়তপুরে লঞ্চডুবি ৩৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নিখোঁজদের সন্ধান মেলেনি

শরীয়তপুরে লঞ্চডুবি ৩৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নিখোঁজদের সন্ধান মেলেনি

base_1505218567-I

সিনিউজ:  শরীয়তপুরে তিন লঞ্চ ডুবির ৩৪ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও নিখোঁজ ১৫ জনের কারও খোঁজ মেলেনি। উদ্ধার কাজের দৃশ্যমান কোন অগ্রগতি না হওয়ায় হতাশায় ভেঙে পড়েছেন স্বজনরা। মঙ্গলবার সকাল থেকেই নদীরপাড়ে এসে নিখোঁজ স্বজনদের অন্তত লাশ পাওয়ার অপেক্ষায় শত শত লোক ভিড় জমাচ্ছেন। শোকার্ত স্বজনদের আহাজারিতে ভারি হয়ে উঠেছে পদ্মাপাড়। উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়ের কার্যকারিতা নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন স্বজনহারা মানুষ। গতকাল সন্ধ্যা পর্যন্ত কোন মৃতদেহ উদ্ধার করতে পারেনি উদ্ধারকারীরা।
উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয় সোমবার দুপুর থেকে উদ্ধার কাজ শুরু করলেও মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে তিনটা পর্যন্ত দৃশ্যমান তেমন কোনও অগ্রগতি হয়নি। ওয়াপদাঘাট থেকে প্রায় ৫ কিলোমিটার দূরত্বে কাচিকাটা ইউনিয়নের চরমোহন এলাকায় এমভি মৌচাক-২ লঞ্চটির সন্ধান পেলেও তীব্র স্রোতের কারণে লঞ্চটিকে এখনো উঠানো যায়নি। ফলে নিখোঁজ স্বজনদের মরদেহ না পেয়ে পদ্মাপাড়ে ভিড় জমানো স্বজনরা বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন।
নড়িয়া-২ লঞ্চের যাত্রী নারায়ণগঞ্জের কালীবাজারের স্বর্ণের দোকানদার রিপন দাসের আত্মীয় দিলীপ  দে বলেন, প্রায় দুই দিন পার হয়ে  গেলেও এখনো কাউকেই উদ্ধার করতে পারেনি উদ্ধারকারীরা। এইটা কোন ধরনের উদ্ধার কাজ বুঝি না। আমরা দ্রুত আমাদের স্বজনদের অন্তত লাশ চাই।
উদ্ধারকারী জাহাজ প্রত্যয়ে থাকা বিআইডব্লিউটিএর উপপরিচালক জহির উদ্দীন চৌধুরী বলেন, আমরা সাধ্যমতো চেষ্টা করছি। পদ্মার প্রবল স্রোত ও বেশি গভীরতার কারণে ডুবুরিদল পানির নিচে গিয়ে অবস্থান করতে পারছে না। তাছাড়া প্রবল পদ্মার বেশি গভীরতায় কাজ করতে ডুবুরিদেরও ঝুঁকি রয়েছে। সেটিও আমাদেরকে বিবেচনায় রাখতে হয়। আমরা আশা করছি দ্রুতই আমরা সাফল্য পাবো।
শরীয়তপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা প্রশাসক মাহবুবা আক্তার বলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ সংশ্লিষ্ট সকলকে সুনির্দিষ্টভাবে নিখোঁজদের তালিকা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। আমরা ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারগুলোকে সহায়াতার ব্যাপারে পদক্ষেপ গ্রহণ করছি।