বুধবার , ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
Home » অর্থনীতি » কৃষি পণ্যের রপ্তানি আয় বেড়েছে

কৃষি পণ্যের রপ্তানি আয় বেড়েছে

tea_garden.

tea_garden.

সি নিউজ: সবুজ-শ্যামল বাংলার ভূমি অত্যন্ত উর্বর। প্রতি বছর বাংলাদেশের কৃষিপণ্য রফতানি বাড়ছে।  এ ধারা অব্যাহত থাকলে অচিরেই এ খাত থেকে আরো  অধিক পরিমাণে  বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব। ২০১৭-১৮ সালের অর্থবছরের শুরু থেকেই ইতিবাচক পথে রয়েছে কৃষিপণ্য রপ্তানি। প্রথম প্রান্তিকে এ খাতের আয় হয়েছে ১৪ কোটি ৭৯ লাখ মার্কিন ডলার বা প্রায় ১ হাজার ২৩০ কোটি টাকা; যা এ সময়ের লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৮ শতাংশ বেশি। একই সঙ্গে আগের (২০১৬-১৭) অর্থবছরে একই সময়ের তুলনায়ও আয় বেড়েছে বা প্রবৃদ্ধি হয়েছে ২০ দশমিক ৯৪ শতাংশ। বাংলাদেশ রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) সর্বশেষ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
ইপিবি সূত্র জানায়, শেষ হওয়া (২০১৬-১৭) অর্থবছরে কৃষিপণ্য রপ্তানিতে আয় ছিল ৫৫ কোটি ৩১ লাখ ৭০ হাজার ডলার। আর চলতি অর্থবছরে এ খাতে রপ্তানি আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে ৫৭ কোটি ৬০ লাখ ডলার। দেশের রপ্তানি হওয়া কৃষিপণ্যের মধ্যে রয়েছে চা, সবজি, মসলা, ফল, ফুল, শুকনো খাবার ইত্যাদি।
প্রতিবেদনে দেখা গেছে, অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে চা রপ্তানিতে ১১ লাখ ৯০ হাজার ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রার বিপরীতে আয় হয়েছে ৬ লাখ ৮০ হাজার ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৪২ দশমিক ৮৬ শতাংশ কম। তবে গত অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় বেড়েছে ১৩.৩৩ শতাংশ। গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রথম প্রান্তিকে চা রপ্তানি হয়েছিল ৬ লাখ ডলারে।
জুলাই-সেপ্টেম্বর মেয়াদে সবজি রপ্তানিতে ১ কোটি ৯০ লাখ ২০ হাজার ডলার আয়ের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হলেও এ সময়ে আয় হয়েছে ১ কোটি ৮৭ লাখ ৩০ হাজার ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ১ দশমিক ৫২ শতাংশ কম। তবে আগের অর্থবছরের প্রথম ৩ মাসের তুলনায় এ খাতের রপ্তানি আয় ২ দশমিক ০৭ শতাংশ বেড়েছে।
তিন মাসে ফল রপ্তানিতে আয় হয়েছে ১৬ লাখ ৪০ হাজার ডলার; যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ২৪১ দশমিক ৬৭ শতাংশ এবং আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় ৩৮২ দশমিক ৩৫ শতাংশ বেশি। আলোচ্য সময়ে মসলাজাতীয় পণ্য রপ্তানি লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছিল ৪ লাখ ৮০ হাজার ডলার, আয় হয়েছে ১ কোটি ৪ লাখ ৪০ হাজার ডলার। যা লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে ৯ দশমিক ৭৮ শতাংশ বেশি। একই সঙ্গে গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম ৩ মাসের মসলাজাতীয় পণ্য রপ্তানি আয়ের তুলনায় চলতি বছরের প্রথম ৩ মাসের আয় ৫৮ দশমিক ৯০ শতাংশ বেড়েছে।
২০১৭-১৮ অর্থবছরের প্রথম ৩ মাসে শুকনো খাবার রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৩ কোটি ৩৮ লাখ ৬০ হাজার ডলার। যা এ সময়ের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় ১৩ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং আগের অর্থবছরের একই সময়ের আয়ের তুলনায় ৮৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ বেশি। ২০১৬-১৭ অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে এ খাতে রপ্তানি আয় হয়েছিল ১ কোটি ৮১ লাখ ৪০ হাজার ডলার।
অর্থবছরের প্রথম প্রান্তিকে অন্যান্য কৃষিপণ্য রপ্তানিতে আয় হয়েছে ৬ কোটি ৫৭ লাখ ৫০ হাজার ডলার। যা এ সময়ের লক্ষ্যমাত্রার তুলনায় দশমিক ৫৩ শতাংশ কম। একই সঙ্গে আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় এ খাতের আয় ৪ দশমিক ৩৬ শতাংশ কম।