বুধবার , ২৪ জানুয়ারি ২০১৮
Home » জাতীয় » স্কুলের খাতায় রং পেন্সিল দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকল ময়না

স্কুলের খাতায় রং পেন্সিল দিয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি আঁকল ময়না

kalapara Bangabandhu

kalapara Bangabandhu

সি নিউজ :ক্ষুদে চিত্রশিল্পী ময়না আক্তার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি এঁকে অবাক করে দিয়েছে প্রতিবেশী, সহপাঠী ও শিক্ষকদের। এখন স্কুলের খাতায় রং পেন্সিল দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর ছবি আঁকার চেষ্টা করছে সে। পটুয়াখালীর কলাপাড়ার অজোপাড়াগাঁয়ের এই ক্ষুদে চিত্রশিল্পীর আঁকা বঙ্গবন্ধুর ছবি ইতোমধ্যে স্থানীয় আওয়ামী লীগ অফিসে ঠাঁই পেয়েছে।
উপজেলার পাখিমারা প্রফুল্লমন ভৌমিক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির এই শিক্ষার্থী লেখাপড়ার সময়টুকু বাদ দিয়ে বাকি সময়টা কাটায় ছবি আঁকা আর কবিতা লিখে। বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কবিতা লিখে বই প্রাকাশের অদম্য ইচ্ছার কথাও জানিয়েছে ওই শিক্ষার্থী। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, নীলগঞ্জ ইউনিয়নের কুমিরমারা গ্রামের কবির গাজীর একমাত্র মেয়ে ময়না আক্তার বঙ্গবন্ধুর অবদানকে শুধু শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেই থেমে থাকেনি, মনের মাঝে আঁকা ছবি রংতুলিতেও প্রকাশ পেয়েছে। ১৫ আগস্টে শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি এঁকে ও কবিতা লিখে নজর কেড়েছে স্থানীয় সাধারণ মানুষের।
ক্ষুদে চিত্রশিল্পী ময়না জানায়, বিশ্বসেরা মহান নেতা ছিলেন বঙ্গবন্ধু। এ দেশকে স্বাধীন করে দিলেন। আমি এ মহান মানুষটিকে দেখিনি। বাবা-মা ও শিক্ষকদের কাছে শুনেছি দেশের জন্য তার আত্মত্যাগের বহু কাহিনী। এ মানুষটিকে বুকে লালন করে রংতুলি দিয়ে ছবি এঁকেছি। এখন তারই কন্যা প্রাধানমন্ত্রী শেখ হাসিনর ছবি আঁকার চেষ্টা করছি।
ময়নার মা শিউলি বেগম জানান, বাড়িতে একটু ফাঁক পেলেই ও শুধু মোবাইলে বঙ্গবন্ধরু বক্তৃতা শোনে আর পেন্সিল দিয়ে খাতায় ছবি আঁকে।
ময়নার বাবা কবির গাজী জানান, আমাদের পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগের সমর্থক। আমার মোবাইলে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ রেকর্ড করা আছে। বাড়িতে এলেই ময়না ওই ভাষণ শোনে। এছাড়া তার আঁকা ছবি স্থানীয় আওয়ামী লীগ আফিসে বাঁধাই করে রাখা হয়েছে।
পাখিমারা প্রফুল্ল ভৌমিক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক বাদল চন্দ্র বিশ্বাস জানান, ময়না যেভাবে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে মনেপ্রাণে লালন করে সেটা আসলেই অবিশ্বাস্য। ওর দেখাদেখি স্কুলের অন্য শিক্ষার্থীরাও বঙ্গবন্ধুর চেতনায় উজ্জীবিত হয়েছে।
নীলগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান এ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন মাহামুদ জানান, ওর মতো ছোট একটি মেয়ে বঙ্গবন্ধুর ছবি এত সুন্দর করে এঁকেছে যা কল্পনার অতীত। ওর মাধ্যমে তরুণ প্রজন্ম আরো বেশি জাতির জনকের ইতিহাস জানুক আমরা সে দোয়াই করি।